সংবাদ শিরোনাম
  • সকাল ৯:৩২ | ১৮ই জুলাই ২০১৯ ইং , ৩রা শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৪ই জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী

সাবেক মেয়র কামরানের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

শংকর দাশ:
সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেছেন সিলেট নগরীর যেকোনো প্রয়োজনে তিনি অতিতের ন্যায় সবসময় পাশে থাকবেন।
শনিবার গণমাধ্যমে প্রেরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে কামরান বলেন একটি উৎসব মুখর পরিবেশে,অবাধ ও সুষ্ট নির্বাচন সম্পন্ন করায় সিলেট বিভাগীয় প্রশাসন, জেলা প্রশাসন, রিটার্নিং কর্মকর্তা, দলীয় নেতাকর্মী ও সিলেট নগরীর সকল নাগরিকদেরও ধন্যবাদ জানান তিনি।
অতিতের ন্যায় নগরীর সকল কার্যক্রমে তার সহযোগিতা সব সময় থাকবে বলেও তিনি জানান।
এসময় বদর উদ্দিন আহমদ কামরান নির্বাচনের শুরু থেকেই নৌকা মার্কার বিজয়ের লক্ষ্যে কাজ করে যাওয়া কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ,স্থানীয় আওয়ামী লীগ
অঙ্গসংগঠনের সকল নেতাকর্মী ও শুভানুধ্যায়ীদের ধন্যবাদ জানিয়ে সব সময় তাদের পাশে থাকার ও পাশে পাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
এছাড়া শুরু থেকেই সুষ্ঠ নির্বাচন সম্পন্ন করার লক্ষ্যে পুলিশ, বিজিপি,আনসার বাহীনি সহ প্রশাসনের সকল কর্মকর্তা কর্মচারী ও সিলেটসহ দেশের সকল ইলেকট্রনিক, প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ার সকল সাংবাদিকদের উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করার জন্য তাদের ধন্যবাদ জানান সিসিকের সাবেক এই মেয়র।
বদর উদ্দিন আহমদ কামরান নব নির্বাচিত মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, নগরীর যেকোনো উন্নয়ন মূলক কাজে তিনি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিবেন।
উল্লেখ্য গত ৩০ জুলাই সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নগরের ২৪ নং ওয়ার্ডের ১১৬ নং গাজী বুরহান উদ্দিন গরম দেওয়ান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ৯ (পুরুষ ও মহিলা) এবং ২৭ নং ওয়ার্ডের ১৩৪ হবিনন্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (পুরুষ ও নারী) কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ স্থগিত করে নির্বাচন কমিশন।
কেন্দ্র দু’টির মধ্যে গাজী বুরহান উদ্দিন গরম দেওয়ান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ৯ (পুরুষ ও মহিলা) কেন্দ্রে ২ হাজার ১২১ ভোট এবং হবিনন্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২ হাজার ৫৬৬ ভোট রয়েছে।
সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ২৭টি ওয়ার্ডে ১৩৪টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৩২টির ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী আরিফুল হক চৌধুরী ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ৯০ হাজার ৪ শত ৯৬ ভোট। আওয়ামী লীগ প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরান নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ৮৫ হাজার ৮ শত ৭০ ভোট।
১৩২ কেন্দ্রের ফলাফলে ৪ হাজার ৬ শত ২৬ ভোটে আরিফুল হক চৌধুরী এগিয়ে থাকলেও এ দুই কেন্দ্রের মোট ভোট ৪ হাজার ৭ শত ৮৭। সে হিসেবে স্থগিত কেন্দ্রের ভোটের চেয়ে ১৬১ ভোট পিছিয়ে রয়েছেন আরিফুল হক চৌধুরী। যে কারণে গত ১ আগস্ট কেন্দ্র দু’টিতে ১১ আগস্ট ফের ভোটগ্রহণের তারিখ ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।
সাবেক মেয়র কামরান বলেন অতীতে যেমন নগরবাসীর পাশে ছিলাম ভবিষৎতে এই নগরবাসীর পাশে থেকে বাকী জীবন কাটাতে চাই।

মোহাম্মদ ফরিদ,কক্সবাজার থেকে: রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে বৈধ কাগজপত্র বিহীন আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থার হয়ে কাজ করছিলেন এমন ১৬ জন বিদেশি নাগরিককে আটক করে র্যাব-৭। ১৯ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বিকেলে একটি যৌথ চেকপোস্টে...

ফেসবুকে আমাদের সাথে থাকুন



L0go

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

 
Shares